কঙ্গনাও যৌন হয়রানির শিকার

admin

কঙ্গনাও যৌন হয়রানির শিকার!

হলিউডের পর যৌন হয়রানি নিয়ে বলিউডের অভিনেত্রীরাও একে একে মুখ খুলছেন। নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে তনুশ্রী দত্তের যৌন হয়রানির অভিযোগ নিয়ে তো তুলকালাম গোটা ভারতে! এবার বোমা ফাটালেন কঙ্গনা রনৌত। তার অভিযোগ, একাধিক জায়গায় পরিচালক বিকাশ বলের আচরণ অস্বস্তিকর লেগেছে তার। ২০১৪ সালের ব্যবসাসফল ও প্রশংসিত ‘কুইন’ ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেন তারা।
ভারতের ইন্ডিয়া টুডে টিভি চ্যানেলের কাছে কঙ্গনা বলেছেন, ‘বিকাশ বলকে পুরোপুরি ভরসা করতাম। ‘কুইন’-এর শুটিং চলাকালে তিনি বিবাহিত ছিলেন। অথচ তখন অন্য নারীর সঙ্গে প্রায়ই শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হওয়া ছিল তার নেশা। মানুষের বৈবাহিক সম্পর্ক নিয়ে আমার অত মাথাব্যথা নেই। কিন্তু আসক্তি যদি অসুস্থতা হয়ে যায় তাহলে মুখ খোলা প্রয়োজন। প্রতি রাতে পার্টি করা ছিল তার অভ্যাস। একটু জলদি ঘুমিয়ে পড়তাম বলে আমাকে লজ্জা দিতেন তিনি।’ কঙ্গনা আরও বলেন, ‘শুটিং কিংবা সামাজিক অনুষ্ঠানে দেখা হলেই কুশল বিনিময় ও কোলাকুলি করতাম আমরা। কিন্তু তিনি আমার ঘাড়ে মুখ ছোঁয়াতেন। খুব চেপে ধরে আমার চুলের ঘ্রাণে নিঃশ্বাস ছাড়তেন। এতে অবশ্য আমার লাভই হয়! তার আলিঙ্গন থেকে নিজেকে ছাড়িয়ে আনার শক্তি পাই। তার মুখে শুনতাম, ‘তোমার সুবাস ভালো লাগে।’ তখন মনে হতো মানুষ হিসেবে তার মধ্যে ঝামেলা আছে।’
বলিউডের তিন নির্মাতা অনুরাগ কাশ্যাপ, বিক্রমাদিত্য মোতওয়ানে ও মধু মান্টেনার সঙ্গে বিকাশ বলের ফ্যান্টম ফিল্মস নামে একটি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ছিল। যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠার পর ৬ অক্টোবর এটি বন্ধের ঘোষণা দেন অনুরাগ। তবে প্রতিষ্ঠানটির একজন নারী কর্মী গত বছর অভিযোগ তোলেন, গোয়ায় বেড়ানোর সময় তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছেন বিকাশ।
সম্প্রতি হাফিংটন পোস্ট ইন্ডিয়ার একটি প্রতিবেদনে আবারও একই অভিযোগ তোলেন ওই নারী। একইসঙ্গে গোয়ায় ঘটে যাওয়া ঘটনার আরও বিস্তারিত জানিয়েছেন তিনি। তার দাবি, ২০১৫ সালের অক্টোবরে অনুরাগ কাশ্যাপকে এ বিষয়ে জানালেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। উল্টো বিকাশ তাকে লাগাতার হয়রানি করে যাচ্ছিলেন। এ কারণে শেষ পর্যন্ত চাকরি ছাড়তে বাধ্য হন ওই নারী।
প্রতিবেদনটি ভাইরাল হওয়ার পর বিকাশ বলের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন কঙ্গনা। তিনি এসব অভিযোগের সত্যতা বিশ্বাস করেন। তবে ৩১ বছর বয়সী এই তারকার মন্তব্য, ‘দুঃখজনক হলো, মানুষ এখন তার বিরুদ্ধে আঙুল তুলছে। ফ্যান্টম ফিল্মস বন্ধের ঘোষণাও এসেছে। অথচ তিন বছর আগে ওই নারী এত করে সহযোগিতা চাওয়ার পরও কিছু বলা হয়নি অভিযুক্তকে। আয়নায় এবার নিজেদের দেখুন, কাপুরুষের দল।’
কঙ্গনা রনৌত ও বিকাশ বলওই নারীর প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ছবি হাতছাড়া হয়েছে বলে জানান কঙ্গনা। তার কথায়, ‘সেই সময় হরিয়ানার একজন স্বর্ণপদক জয়ী মেয়ের জীবন অবলম্বনে সাজানো একটি চিত্রনাট্য নিয়ে এসেছিলেন বিকাশ। কিন্তু ওই মেয়েটির পাশে দাঁড়িয়েছি শুনে পিছু হটে যান তিনি। এ নিয়ে আমার মোটেও মন খারাপ হয়নি। এরপর থেকে আর তার সঙ্গে যোগাযোগ রাখিনি। আমার কাছে যা সঠিক মনে হয়েছে সেটাই বলে দিয়েছি। কিন্তু ধীরে ধীরে বিষয়টি ঢাকা পড়ে যায়। সেই সময়ে একটি কঠিন সত্যকে মেরে ফেলা হয়েছিল।’
‘কুইন’ ছবিতে বিয়ে ভেঙে যাওয়ার পর একাই হানিমুনে যাওয়া দিল্লির তরুণীর চরিত্রে অভিনয় করে ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান কঙ্গনা। তার আগামী ছবি ‘মনিকর্ণিকা: দ্য কুইন অব ঝাঁসি’ মুক্তি পাবে ২০১৯ সালের ২৫ জানুয়ারি। একইদিন প্রেক্ষাগৃহে আসবে বিকাশ বল পরিচালিত ফ্যান্টম ফিল্মসের শেষ প্রযোজনা ‘সুপার থার্টি’। এতে গণিতবিদের চরিত্রে অভিনয় করেছেন কঙ্গনার কথিত প্রেমিক হৃতিক রোশন।
তথ্যসূত্র : বাংলাট্রিবিউন, ৭ অক্টোবর ২০১৮

Share us
Next Post

হাত জোড় করে বিদায় নেন নানা

হাত জোড় করে বিদায় নেন নানা ‘নতুন করে কিছু বলার নেই। ১০ বছর আগেই বলেছি। তখন যা বলেছি, এখনো তা-ই বলব। সেটা এখন পাল্টে যাবে না। মিথ্যা বরাবর মিথ্যাই থাকবে। মিথ্যাটা কখনো সত্যি হয়ে যাবে না।’ বললেন নানা পাটেকার। আজ সোমবার দুপুরে মুম্বাইয়ে নিজের বাসার সামনে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের মুখোমুখি […]
Nana Patekar