হাত জোড় করে বিদায় নেন নানা

admin

হাত জোড় করে বিদায় নেন নানা
‘নতুন করে কিছু বলার নেই। ১০ বছর আগেই বলেছি। তখন যা বলেছি, এখনো তা-ই বলব। সেটা এখন পাল্টে যাবে না। মিথ্যা বরাবর মিথ্যাই থাকবে। মিথ্যাটা কখনো সত্যি হয়ে যাবে না।’ বললেন নানা পাটেকার। আজ সোমবার দুপুরে মুম্বাইয়ে নিজের বাসার সামনে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের মুখোমুখি হন বলিউডের এই শক্তিমান অভিনেতা।
ঘোষণাটা আগেই দিয়েছিলেন, সোমবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করবেন নানা পাটেকার। তনুশ্রী দত্ত তাঁর বিরুদ্ধে যে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছেন, সে ব্যাপারে তিনি নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করবেন। কিন্তু পিটিআই জানিয়েছে, শেষ মুহূর্তে তা বাতিল করে নানা পাটেকারের ছেলে মালহার খুদে বার্তা পাঠিয়েছেন। তিনি জানান, ‘সংবাদ সম্মেলনটি বাতিল করা হয়েছে। দয়া করে তা আপনার সহকর্মীকেও জানিয়ে দিন। পরে কোনো সুবিধাজনক সময়ে তা আয়োজন করা হবে।’ কারণ হিসেবে জানা গেছে, নানা পাটেকার এখন তাঁর আইনজীবীর পরামর্শ মেনে চলছেন। আইনজীবী এভাবে কথা না বলার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন।
তবে দুপুরেই বাসার সামনে উপস্থিত বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের ক্যামেরার সামনে হঠাৎ এসে উপস্থিত হন নানা পাটেকার। তিনি বললেন, ‘আমি তো প্রায়ই আপনাদের সঙ্গে মুখোমুখি হই।’ তবে আর কোনো ব্যাপারে তিনি কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তখন সাংবাদিকদের অনুরোধে মূল প্রসঙ্গ এড়িয়ে কিছু মন্তব্য করেন। সাংবাদিকেরা তনুশ্রী দত্তের অভিযোগের ব্যাপারে তাঁর দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করেন। তিনি সেদিকে কান না দিয়ে হাত জোড় করে দ্রুত বিদায় নিয়ে বাসার ভেতরে চলে যান।
গত বৃহস্পতিবার অভিনেতা নানা পাটেকার আর পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীর আইনজীবীদের পাঠানো আইনি নোটিশ পেয়েছেন তনুশ্রী। সম্প্রতি এই দুজনের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছেন তিনি। আইনি নোটিশ পেয়ে তনুশ্রী একটি বিবৃতিতে বলেছেন, ‘দুটি আইনি নোটিশ পেয়েছি আজ (বৃহস্পতিবার)। একটি নানা পাটেকারের কাছ থেকে, অন্যটি বিবেক অগ্নিহোত্রীর কাছ থেকে। এটা হলো ভারতে যৌন হেনস্তা, অপমান ও অবিচারের বিরুদ্ধে কথা বলার পুরস্কার।’
এবার বলিউডের শক্তিমান অভিনেতা নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন ২০০৪ সালের ‘মিস ইন্ডিয়া’ ও একসময়ের বলিউড তারকা তনুশ্রী দত্ত। মুম্বাইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (পশ্চিম) মনোজ কুমার শর্মা পিটিআইকে জানিয়েছেন, নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে তনুশ্রী দত্ত অভিযোগ করেছেন। তাঁর অভিযোগ মামলা হিসেবে নথিবদ্ধ করা হয়েছে।
তনুশ্রী আগেই বলেছেন, ২০০৮ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির একটি আইটেম গানের শুটিংয়ের সময় বাজেভাবে তাঁর শরীরে হাত দেন নানা পাটেকার। ঘটনার প্রতিবাদ করায় ছবির প্রযোজক ও পরিচালক কেউই তখন পাত্তা দেননি। এমনকি আনুষ্ঠানিকভাবে সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের (সিনটা) কাছে অভিযোগ জানিয়েও কোনো লাভ হয়নি। বরং তাঁর ওপর হামলা চালিয়েছিল একদল লোক।
এদিকে ‘হাউসফুল ফোর’ ছবির শুটিং শেষ করে জয়সলমির থেকে মুম্বাই ফিরেছেন নানা পাটেকার। মুম্বাই বিমানবন্দরে তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমি ১০ বছর আগেই কথা বলেছি। যেটা মিথ্যা, সেটা মিথ্যাই।’
তথ্যসূত্র : প্রথম আলো, ৮ অক্টোবর ২০১৮

Share us
Next Post

হ্যাশট্যাগ মিটুতে বেরিয়ে আসছে যৌন হেনস্তা

হ্যাশট্যাগ মিটুতে বেরিয়ে আসছে যৌন হেনস্তা হ্যাশট্যাগ মিটু আন্দোলনে তোলপাড় বলিপাড়া। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একের পর এক ‘অপরাধীর’ নাম প্রকাশ করছেন ভুক্তভোগী ব্যক্তিরা। অভিনেতা, কৌতুক অভিনেতা, সাংবাদিক, লেখক, পরিচালক থেকে শুরু করে সব ক্ষেত্রের পুরুষের বিরুদ্ধে উঠছে যৌন হেনস্তার অভিযোগ। তবে এই আন্দোলন কতটুকু সফল হবে বা কতটুকু যৌক্তিক, তা নিয়ে […]
Tanushree Dutta